দৌলতপুরে দারুন নূর দাখিল মাদ্রাসার সভাপতি নিয়োগ নিয়ে সুপারের পাইতারা।

meherpurerkanthomeherpurerkantho
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  04:41 PM, 03 July 2024

 

 

কুষ্টিয়া দৌলতপুরে হোগলবাড়ি ইউনিয়নে শশীধরপুর গ্রামের শশীধরপুর দারুন নূর দাখিল মাদ্রাসাতে সভাপতি নিয়োগ নিয়ে নানান রকম অজুহাত লক্ষ করা যায় ঐ প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক সুপার মোঃ আহসান হাবিবের।

প্রতিষ্ঠান টিতে নানান রকমের ভয়ভীতি ও তালবাহানা শহিত প্রধান শিক্ষক এড্যাট কমিটি গঠন করে।

উক্ত প্রতিষ্ঠানটিতে বিগত দশ বছর ধরে ঐ গ্রামের মৃত বিশারত মন্ডলের ছেলে মোঃ আরোজ আলী মন্ডল সততার সহিত সভাপতির দায়িত্ব পালন করে আসছিল ২০২৩ সাল পর্যন্ত।

প্রতিষ্ঠাটিতে মারামারি রাহাজানি লেগে থাকার জন্য কিছু কুচক্র মহল প্রধান শিক্ষক কে ভেটু দিয়ে আসছে।

গত দশ বছরে আরোজ আলী মন্ডল শশীধরপুর দারুন নূর দাখিল মাদ্রাসাটিতে পরিচালনার সময় কোন প্রকার অনিয়ম হয় নি। আরোজ আলী সভাপতি থাকা অবস্থায় ২০২৩ সালে শিক্ষা প্রকৌশলি অধিদপ্তর ( ই ই ডি) কুষ্টিয়ার মাধ্যমে মাদ্রাসাটিতে ৪ তলা বিশিষ্ট বিল্ডিংএর কাজ সুষ্ঠু ভাবে সম্পন্ন হয়েছিল। ছাত্র / ছাত্রীরা ঠিক মত পাঠ দান করে আসছিল। শিক্ষক / শিক্ষাকারা সহ মনোরম পরিবেশে মাদ্রাসাটি পরিচালনা করত ।

বর্তমান অবস্থায় ছাত্র / ছাত্রী ঐ মাদ্রাসাটিতে নাই বলেই চলে। প্রতিষ্ঠানটিতে ছাত্র / ছাত্রী সীমিত থাকার কারণে বিভিন্ন এলাকা থেকে শুধু নাম ধারণ করে সরকারের কাছ থেকে নানা প্রকার ভাউসার জমা দিয়ে শিক্ষা খাত থেকে টাকা উত্তলন করে।

শশীধরপুর দারুন নূর দাখিল মাদ্রাসাটি ১৯৯৭ সালে শশীধরপুর গ্রামের মধ্যে পাড়ায়
অতি গ্রামের ভিতর অবস্থিত।

এমন অবস্থায় ঐ মাদ্রাসার সুপার আহসান হাবীব অযোগ্য লোককে সভাপতির দায়িত্ব দেবার জন্য নানান রকম জলপোনা কল্পনা শুরু করেছে।

সরকারির নিয়ম অনুসারে নির্বাচনের ফরম জমা হওয়া সত্তেও জোর পূর্বক কমিটির কাজ সম্পন্ন করতে চাই । মাদ্রাসা টিতে কমিটির নির্বাচন না করে অর্থের বিনিময়ে সভাপতির নিয়োগ সম্পন্ন করতে চাই মাদ্রাসার সুপার আহসান হাবীব।

মাদ্রাসাটিতে বর্তমানে ছাত্রের চেয়ে শিক্ষকের সংখ্যা বেশী। কমিটি না থাকায় মাদ্রাসা টিতে ছাত্র/ ছাত্রীর সংখ্যা দিন দিন কমে যাচ্ছে।

আমি সাবেক সভাপতি মোঃ আরোজ আলী মন্ডল উর্ধতন কর্মকর্তা কাছে দৃষ্টি আকর্ষণ করছি যেন যাচাই-বাছাই করে সঠিক ভাবে নির্বাচনের মাধ্যমে মাদ্রাসা টি পরিচালনা করতে পারে এমন এক জনকে দায়িত্ব ভার দেওয়া হক।

আপনার মতামত লিখুন :